jagannathpurpotrika-latest news

আজ, ,

সর্বশেষ সংবাদ
«» ছাতকে চাঁদাবাজ ইদন মিয়া গ্রেফতার «» ছাতকের আলীগঞ্জ বাজারে দক্ষিণ ছাতক উপজেলা বাস্তবায়নের দাবিতে আবেদন «» খেলাফত মজলিস মৌলভীবাজারে বড়লেখা উপজেলায় উলামা ও সূধী সমাবেশ সম্পন্ন «» গোয়াইনঘাটে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হামলা, গ্রেফতার ১ «» খেলাফত মজলিস সিলেট মহানগরীর নির্বাহী সভা অনুষ্ঠিত «» আগামী শুক্রবার সিলেটে সমমনা ইসলামী দলের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ «» ছাতকে বাড়ি ফেরার পথে গৃহবধূ ধর্ষণ, যুবক গ্রেফতার «» সিলেটে শেখ রাসেলের ৫৭তম জন্মদিন পালন «» ওসমানীনগর ইউপি নির্বাচনে বিএনপিসহ একাধিক প্রার্থীর আচরণবিধি লঙ্গন «» জগন্নাথপুরে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতার উপর হামলার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের



৫৪ হাজার রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশি পাসপোর্ট দিতে চাপ দিচ্ছে সৌদি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট :: সৌদি আরবে থাকা ৫৪ হাজার রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশি পাসপোর্ট দেয়ার জন্য চাপ দিচ্ছে সেই দেশের সরকার। এই রোহিঙ্গারা ৩০-৪০ বছর ধরে সৌদি আরবে অবস্থান করছে। রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট না দিলে সেখানে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠানোর হুমকিও দেয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন বলেন, সৌদি আরবের তৎকালীন বাদশা স্বপ্রণোদিত হয়ে এবং রোহিঙ্গাদের দুর্দশা দেখে ৮০ ও ৯০-এর দশকে অনেক রোহিঙ্গাকে নিয়ে গেছেন। অনেকে সরাসরি গেছে। কেউ কেউ হয়তো বাংলাদেশ হয়ে গেছে। তিনি বলেন, এটি আমরা পুরোপুরি জানি না।

তিনি বলেন, এখন তারা (সৌদি) বলছে ৫৪ হাজার রোহিঙ্গা সেখানে আছে। তারা বলছে, এদের কোনো পাসপোর্ট নেই এবং কোনো কাগজ নেই। তারা আরও বলছে, এদের তোমরা পাসপোর্ট ইস্যু কর। আমরা বলেছি, যারা আগে পাসপোর্ট পেয়েছে এবং তাদের পাসপোর্টের কাগজ যদি থাকে তবে আমরা নতুন পাসপোর্ট ইস্যু করব। কিন্তু এরা যদি আমাদের লোক না হয়, তবে আমরা নেব না।

বুধবার আন্তঃমন্ত্রণালয়ের এক বৈঠক শেষে নিজ কার্যালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। বাংলাদেশের নাগরিক না হওয়ার পরেও কীভাবে সৌদি আরব পাসপোর্ট ইস্যু করতে বলে- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, সেটা আমি কী করব, এটা মুশকিল।

রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট না দিলে অন্য বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠানো হবে বলে হুমকি দেয়া হচ্ছে- এ বিষয়ে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, জুনিয়র লেভেলে কেউ কেউ বলছে তোমরা যদি এদের না নাও বা পাসপোর্ট ইস্যু না কর তবে তোমাদের দেশ থেকে এত লোক আনছি, এটা আমরা বন্ধ করে দেব এবং তোমাদের যে ২২ লাখ লোক আছে তাদের সম্পর্কে নেতিবাচক অবস্থান নেব। এই কথাগুলো জুনিয়র লেভেল থেকে আমাদের বলা হয়েছে। কিন্তু আমার মনে হয় এটি টিকবে না।

পররাষ্ট্র সচিবের নেতৃত্বে একটি কমিটি বিষয়টি দেখছেন জানিয়ে আবদুল মোমেন বলেন, কিন্তু সৌদি আরবের কিছুটা তাগাদা আছে। তারা বলছে, নাগরিকত্বহীন কোনো ব্যক্তি তারা রাখবে না। তারা বলছে, তোমরা এটি তাড়াতাড়ি ব্যবস্থা কর। আমরা আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি। প্রায়ই তারা এ প্রশ্নটা তোলে।

এদিকে সৌদি আরবে ফেরত যেতে প্রত্যাশী আন্দোলনরত প্রবাসীদের বিশৃঙ্খলা না করার পরিবর্তে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, সবাইকে ধৈর্য ধরতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই। সমস্যাটি সমাধানে আমরা আন্তরিকভাবে এবং সবাই মিলে কাজ করছি।