jagannathpurpotrika-latest news

আজ, ,

সর্বশেষ সংবাদ



‘করোনা’ ভাইরাস একটি মেসেজ দিচ্ছে : মুফতি রশীদুর রহমান ফারুক বর্ণভী

জেএসবি টুয়েন্টিফোর :: করোনা ভাইরাস নিয়ে দিকনির্দেশনামূলক গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য প্রদান করেছেন দেশবরেণ্য ইসলামি ব্যক্তিত্ব ও প্রাজ্ঞ আলেম মুফতি রশীদুর রহমান ফারুক বর্ণভী (সাহেবজাদায়ে বর্ণভী)। তিনি একান্ত সাক্ষাৎকারে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণ, মুমিনদের জন্য রোগটি কী, এই মুহুর্তে মুসলমান ও আক্রান্তদের করণীয়, মসজিদে গমনাগমন, দেশের কোয়ারেন্টিন ব্যবস্থা, মহামারিটি ইমাম মাহদি (আ.) আগমণের ইঙ্গিত বহণ করে কি না এবং বর্তমান সঙ্কটপূর্ণ পরিস্থিতিতে খাদ্যদ্রব্য মজুদ বা পণ্যের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে শরিয়াহভিত্তিক তাৎপর্যপূর্ণ আলোচনা করেছেন।

ইসলামের দৃষ্টিতে হোম কোয়ারেন্টিন :
মুফতি রশীদুর রহমান ফারুক বর্ণভী (সাহেবজাদায়ে বর্ণভী) বলেছেন- ‘হোম কোয়ারেন্টিন’ বিষয়টি ইসলামের সঙ্গে সাংঘর্ষিক নয়। এ বিষয়ক হাদিস আগেই বলা হয়েছে- , ‘মহামারি সংক্রমিত এলাকায় লোকজন নিজ নিজ ঘরে অবস্থান করবে।’ তিনি বলেন, করোনাভাইরাসটি সংক্রমণ রোধ করতে যারা প্রবাসী যারা দেশে এসেছেন তারা মানুষের ইসহাসের লক্ষ্যে, অন্যকে কষ্ট না দেয়ার মানসিকতায় নিজ নিজ ঘরে থাকবেন এবং চিকিৎসকদের পরামর্শ নিবেন।

মহামারিটি ইমাম মাহদী (আ.) ও কেয়ামতের আলামত কি-না : এ বিষয়ে বর্ণভী বলেন, কেয়ামতের সর্বোাচ্চ বড় ১০ টি আলাতম ছাড়া বড়, মধ্যম ও ছোট অংখ্য আলামত বের হয়ে গেছে। যার মধ্যে, মদ-জুয়া, বেপর্দা-অশ্লীলতা ইত্যাদি গুনাহগুলো ব্যাপক। সর্বোচ্চ বড় আলাতমগুলোর মধ্যে একটি হলো ইমাম মাহদি (আ.), হযরত ইসা (আ.) আভির্বাব ও দাজজ্জালের আগমন। তবে তাদের আভির্বাবের বিষয়ে নির্দিষ্ট করে সময় বলার কোনো অবকাশ নেই। তবে দুনিয়ার পরিবেশ-পরিস্থিতি দেখে এটা বলতে পারি যে- ইমাম মাহদি (আ.)-এর আগমন হয়তো খুব কাছেই, তবে সময় বলার সুযোগ নেই।

করোনার আতঙ্ক ছড়িয়ে জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি ও ক্রেতাদের অধিক পরিমাণে জিনিসপত্র ক্রয়, ইসলাম কী বলে : বিক্রেতারা দাম বাড়ানো লক্ষ্যে খাদ্য মওজুদ করে পরে বিক্রি করার ব্যাপারে ইসলামে কঠোরভাবে নিষেধ করা হয়েছ। এমন করা যাবে না। আর ক্রেতা যদি খ্যদ্য সঙ্কট দেখা দেবে এই ভয়ে মজুদ রাখে তবে এটা তবে তাকওয়ার খেলাফ। আপনার হয়তো টাকা আছে তাই মাস/ দুই মাসের খাদ্য মওজুদ করে রাখছেন, কিন্তু যে গরিব সে কী করবে? আপনার এটা দেখে তার কষ্ট হবে। তাই এক মুসলমান আরেক মুসলমানের অন্তরে এমন করে কষ্ট দেয়া যাবে না।

গুনাহ ‘করো না ‘ ম্যাসেজ: মুফতি রশীদুর রহমান ফারুক বর্ণভী বললেন- ‘আমি মনে করে ‘করোনা’ ভাইরাসটি একটি মেসেজ দিচ্ছে আমাদের। সেটি হচ্ছে- ‘গুনাহ করো না’- ‘গুনাহ করো না’। আমরা যেন সে ম্যাসেজ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করতে পারি এবং নিজেদের জীবনের পাপগুলোর উপর লজ্জিত হয়ে স্রষ্টার কাছে তওবাহ করতে পারি- এই তাওফিক আল্লাহ আমাদের দান করুন।