jagannathpurpotrika-latest news

আজ, ,

সর্বশেষ সংবাদ
«» দক্ষিণ সুনামগঞ্জে অধ্যক্ষ রবিউল ইসলাম আর নেই «» সুনামগঞ্জে ধানের বিকল্প হিসেবে চাষ হচ্ছে ভুট্টা, সরিষা ও সূর্যমুখী «» ঘুষের টাকা জোগাড় করতে গোপনে ২ বিয়ে, স্ত্রীদের টানা-হেঁচড়ায়… «» মৌলভীবাজারে আ.লীগের সভা বর্জন : যা বললেন শফিক «» জগন্নাথপুরে হিফযুল কুরআন প্রতিযোগিতায় সিলেট বিভাগের ২০০জন অংশ নিয়ে ২০জন বিজয়ী «» ভালো স্কুল-কলেজের সন্ধানে সুনামগঞ্জ ছাড়ছে অনেক পরিবার «» গোলাপগঞ্জে সাংবাদিকদের সাথে বিদায়ী অধ্যক্ষের মতবিনিময় «» শেখ হাসিনা কখনো ত্যাগীদের অবমূল্যায়ন করেন না: সিলেটে শফিক «» বিশ্বনাথে কৃষি উদ্যোক্তা তৈরী শীর্ষক বৈঠক অনুষ্ঠিত «» জগন্নাথপুরে অধ্যক্ষ ছমির উদ্দিন ও ড. সৈয়দ রেজওয়ান আহমদকে গুণীজন সংবর্ধনা প্রদান



জগন্নাথপুরের আশারকান্দিতে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

জেএসবি টুয়েন্টিফোর :: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের দিঘলবাগ (খ) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) ওই শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ (শোকজ) করা হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার দিঘলবাগ (খ) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অঞ্জন কান্তি তালুকদার ২০১৮ সালের ২৭ জুন বিদ্যালয়ে যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকে নানা অনিয়ম দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েন তিনি। ভুয়া ভাউচারের মাধ্যমে ভূতুড়ে বিল তৈরী করে বিদ্যালয়ের বিভিন্ন উন্নয়ন তহবিলের অর্থ আত্মসাৎ  করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। বিদ্যালয় মেরামতের জন্য গত অর্থ বছরের ২০১৭-২০১৮/ স্লিপের ৪০ হাজার টাকা এবং ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরের ৫০ হাজারসহ মোট ৯০ হাজার টাকা বিদ্যালয়ে কাজ না করেই আত্মসাৎ করেছেন।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, বিদ্যালয় ভবনের বিভিন্ন শ্রেণী কক্ষে ফাটল রয়েছে। কিন্তু উন্নয়ন বরাদ্দের টাকায় মেরামতের কোন চিহৃ দেখা যায়নি।

তার বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ রয়েছে তিনি বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থেকেই বেতন বিল উত্তোলন করছেন।

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে প্রধান শিক্ষক অঞ্জন কান্তি তালুকদার বলেন, স্লিপের অর্থের সকল হিসেব শিক্ষা অফিসে দিয়েছি। আমি কোন দুর্নীতি করিনি।

সস্প্রতি জগন্নাথপুর উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা রাপ্রুচাই মারমা উক্ত স্কুল পরিদর্শনে গেলে প্রধান শিক্ষককে বিদ্যালয়ে পাননি। তিনি প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ২৯ সেপ্টেম্বর ওই শিক্ষককে নোটিশ (শোকজ) করেন। সাতদিনের মধ্যে এর জবাব দেওয়ার নির্দেশ রয়েছে শোকজে।

এছাড়া গত মঙ্গল ও বুধবার এই দুইদিন বিদ্যালয়ে কোন কারণ ছাড়াই অনুপস্থিত থাকার কারণ দর্শানোর জন্য আবারও প্রধান শিক্ষক অঞ্জন কান্তি তালুকদারকে সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা রাপ্রুচাই মারমা নোটিশ করেছেন।

এব্যাপারে জগন্নাথপুর উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা রাপ্রুচাই মারমা বলেন, প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়াও তিনি বিদ্যালয়ে অধিকাংশ সময় অনুপস্থিত থাকেন। এসব বিষয়ে জানতে ওই শিক্ষককে কারণ দর্শানোর জন্য লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। বিষয়টি জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে আমি অবহিত করেছি।