jagannathpurpotrika-latest news

আজ, ,

সর্বশেষ সংবাদ
«» খেলাফত মজলিসের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সভায় জ্বালানী তেল ও বিদ্যুতের দাম আবারো বৃদ্ধি করা হলে গণবিস্ফোরণ ঘটবে- মাওলানা ইসহাক «» আ.লীগে এখন নেতার শেষ নেই, নেতা আছে, কর্মী পাওয়া যায় না- ওবায়দুল কাদের «» বিএনপির ৭ নেতাকর্মী আটক «» জগন্নাথপুর সরকারি কলেজে নবীনবরণ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান «» সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনে নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা «» শায়খুল হাদিস রহ. ইস্যুতে ক্ষমা চাইল যমুনা টিভি «» ২০২০ সালে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ খেলবে ভারত! «» সিলেটে আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে স্বাগত জানিয়ে জেলা যুবলীগের প্রচার মিছিল «» শাইখুল হাদীসকে নিয়ে যমুনা টিভির কুরুচিপূর্ণ মন্তব্যের প্রতিবাদে ইসলামী সর্বদলীয় সংবাদ সম্মেলন «» লন্ডনে ২য় ভাষার মর্যাদা পেল ‘বাংলা’



বিশ্বনাথে যুবলীগের ১৯ বছরেও সম্মেলন হয়নি

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি :: আহ্বায়ক কমিটির মেয়াদ ছিল ৩ মাস। কিন্তু প্রায় ৭ বছর পেরিয়ে যাওয়ার পরও সেই আহ্বায়ক কমিটি দিয়েই খুঁড়িয়ে চলছে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা যুবলীগ। সম্মেলনের মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের কোনো তোড়জোড় নেই আহ্বায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দের। র্দীঘ ১৯ বছরেও হয়নি সম্মেলন। তবে কবে হবে উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন এখনও বলা মুশকিল। সম্প্রতি জেলা যুবলীগের কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগষ্ট মাসের পর উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন হওয়ার আভাস পাওয়া যাচ্ছে। পূর্ণাঙ্গ কমিটি না থাকায় বর্তমানে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন যুবলীগে একধরনের স্থবিরতা বিরাজ করছে। হতাশায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়ছেন নেতাকর্মীরা। বর্তমানে উপজেলা যুবলীগ দুটি ভাগে বিভক্ত। সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও একাদশ সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী বলয়ে যুবলীগের এক গ্রুপ ও অপর গ্রুপ যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বলয়ে রয়েছেন।

নতুন কমিটি গঠন না হওয়ায় একদিকে যেমন সৃষ্টি হয়নি নতুন নেতৃত্ব, অন্যদিকে অনেকটা ঝিমিয়ে পড়ে সাংগঠনিক কার্যক্রম। রাজপথে যুবলীগের গুরুত্ব অনুধাবন করে দ্রুত উপজলো যুবলীগের কমিটি ঘোষণা করতে জেলা যুবলীগ নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানিয়েছেন সাধারণ নেতাকর্মীরা।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৯৮ সালের প্রথম দিকে সম্মেলনের মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটিতে মঈনুল হোসেন আগুরকে সভাপতি ও মাহবুবুর রহমান লিলুকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়। এর পর থেকে সম্মেলন হয়নি প্রায় ১৬ বছরেও। ২০১০ সালে কমিটি ভেঙে জেলা যুবলীগ নেতা শেখ আজাদ, মাসুদ আহমদ ও রুনু কান্ত দে’কে দায়িত্ব দেওয়া হয় বিশ্বনাথ যুবলীগের। তারা ২০১৩ সালে সম্মেলনের লক্ষ্যে নতুন আহ্বায়ক কমিটি গঠন করেন। কমিটিতে মকদ্দছ আলীকে আহ্বায়ক, আশিক আলী ও আলতাব হোসেনকে যুগ্ম-আহ্বায়ক করা হয়। বর্তমানে যুবলীগের আহবায়ক উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক পদেও রয়েছেন।

উপজেলা যুবলীগের ১৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয় ২০১২ সালের মে মাসে। এই কমিটির মেয়াদ ছিল ৩ মাস। এ সময়ের মধ্যেই সম্মেলন করে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করার দায়িত্ব ছিল আহ্বায়ক কমিটির। কিন্তু ৩ মাসের স্থলে প্রায় ৭ বছর পেরিয়ে যাওয়ার পরও সম্মেলনের মুখ দেখেননি উপজেলা যুবলীগ নেতাকর্মীরা। পূর্ণাঙ্গ কমিটিও তাই ঘোষিত হয়নি।

তৃণমূল যুবলীগ নেতাকর্মীরা জানান, যুবলীগকে আরো শক্তিশালী করতে হলে নতুন কমিটির বিকল্প নেই। তাদের দাবি, যারা মাঠে রাজনীতি করেন, তাদের নিয়েই যেন বিশ্বনাথ যুবলীগের কমিটি গঠন করা হয়।

সিলেট জেলা যুবলীগের সভাপতি শামীম আহমদ বলেন, জেলা যুবলীগের পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠন এবং আগষ্ট মাসের পর উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনের মাধ্যমে উপজেলার কমিটিগুলো গঠন করা হবে বলে তিনি জানান।